আমরা ​রমযানের জন্য কতটুকু প্রস্তুত: একটি চেকলিস্ট

আল্লাহ তাআলা যদি ইচ্ছা করেন, হায়াত দেন…​রমযানুল মুবারক আমরা পাব। বান্দা নেক ইচ্ছা আর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবে – এটা বড় সৌভাগ্যের বিষয়।

সে হিসেবে দেখুন আপনি কি নিচের কাজগুলো করেছেন/করছেন কিনা:

– রমযানের রাত ও দিন কিভাবে অতিবাহিত করবেন, তার জন্য একটি সহজ-সরল রুটিন করেছেন।

– যে কাজগুলো ইবাদতে বিঘ্ন ঘটায় বা ক্লান্তিকর তা আগেই সেরে ফেলেছেন।

– এবার রমযান যেন পান ও আফিয়াত (সুস্থতা, শান্তি, নিরাপত্তার)-এর সাথে অতিবাহিত করতে পারেন, সে দুআ করছেন ও নেক আমল (যেমন: নফল রোজা, নামায, যিকির, তেলাওয়াত, দান সাদাকা ইত্যাদি) কিছু কিছু করে বৃদ্ধি করছেন।

– বাসার মানুষকে নিয়েও কিছু পরামর্শ ও পরিকল্পনা করছেন যে এবারের রমযান কিভাবে আরও সুন্দর ও ফলপ্রসূ করা যায়।

– উলামায়েকেরামের কাছে যাচ্ছেন। তাদেরকে কোনো প্রয়োজনীয় মাসআলা জিজ্ঞেস করছেন। অন্তত নেক সোহবত (সঙ্গ) অর্জন ও দুআ’র জন্য হলেও তাদের কাছে মাঝেমধ্যে অবশ্যই যাওয়া উচিত।

– কোথায় তারাবীহ পড়বেন সেটা ঠিক করেছেন।

– কোনো বই পড়ছেন বা দ্বীনি বয়ান/ওয়াজ/লেকচার শুনছেন যা রমযানের প্রস্তুতির জন্য সহায়ক হয়।

– এখন থেকেই নিজেকে কিছুটা বেশি আখেরাতমুখী করার চেষ্টা করছি; পূর্ব জীবনের গুনাহ থেকে তওবা করছি। অর্থাৎ, এখন থেকেই গুনাহ ছেড়ে দেয়ার এবং রমযান ও পরবর্তী সময়ে তাকওয়া (খোদাভীতি/পরহেগারি) অবলম্বনের নিয়্যত ও চেষ্টা করছি।

হে আল্লাহ! তুমি আমাদের সবাইকে তাওফীক দান কর। আমীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *