মুমিনের জীবন হবে দোআ ও যিকিরের

মুমিনের জীবন হবে দোআ ও যিকিরের। তার দোআ হবে যিকির, যিকির হবে দোআ।
বিভিন্ন অবস্থায় দোআ করার সময় মুমিন যেমন যাকের, যখন সে যিকিরে মগ্ন তখন সে দোআ’য় লিপ্ত।
এজন্যই হাদীসে যেখানে যে দোআ পড়ার কথা বর্ণিত আছে, তা মুখস্থ করে যথাস্থানে পড়লে বান্দা জীবনের সব অবস্থায় আল্লাহ পাককে স্মরণকারী হতে পারে।
আবার হাদীস অনুযায়ী, তেলাওয়াত-যিকিরে মগ্ন থাকার দরুণ বান্দা যদি দোআ’র সুযোগ কম পায়, তবু সে দোআ’র রহমত ও বরকত প্রাপ্ত হয়।
আমাদের মত দুর্বল ও কম হিম্মতওয়ালাদের জন্য সহজ ও করণীয় হল:
১. দিনের একটি সময় অন্তত দোআ’র জন্য ও একটি সময় অন্তত যিকির (তেলাওয়াত-তাসবীহ)-এর জন্য নির্ধারণ করে অল্প হলেও প্রতিদিন কিছু দোআ-যিকির করতে থাকা। এবং
২. বিভিন্ন অবস্থায় হাদীসে বর্ণিত দোআ সমূহ (মুখস্থ করে নিয়ে) তদনুযায়ী পড়তে থাকা।
মুমিনের জীবনে দোআ-যিকিরের প্রভাব অনেক বড় ভূমিকা রাখে। দ্বীন ও দুনিয়ার সব কাজে সহজতার জন্য দোআ-যিকিরের কোনো বিকল্প নেই। এ সৌভাগ্য অর্জন থেকে আমরা কেন বঞ্চিত থাকব?!

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *