তিন তাসবীহ

তিন তাসবীহ (সর্বসাধারণের জন্য প্রাথমিক ও সহজ তাসবীহ/যিকির, যা কুরআন ও হাদীস থেকেই উলামায়েকেরাম নির্ধারণ করেছেন — অশেষ বরকত ও সাওয়াবের কারণ, রূহের খাদ্য)

(তাসবীহগুলো করতে হবে দিনে দু’বার – ফজরের আগে/পরে ও আসরের আগে/পরে করাটা উত্তম; না হলে, অন্তত একদিনে যেকোনো সময়ে দু’বার করুন। অর্থাৎ, এক মাগরিবের আযানের পর থেকে নিয়ে পরবর্তী মাগরিবের আযানের আগে — দু’বার — যেকোনো সময়ে করে নিবেন ইনশাআল্লাহ):

১০০ বার ইস্তেগফার — যেমন: استغفر الله (আস্তাগফিরুল্লাহ) অথবা ربي اغفر لي (রাব্বিগফিরলী) – যেকোনো একটি ইস্তেগফার (কুরআন বা হাদীসে বর্ণিত)

১০০ বার দুরূদ শরীফ — যেমন: صلى الله عليه وسلم (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) – বা যেকোন একটি দরূদ শরীফ (হাদীসে বর্ণিত দরূদ পড়াই উত্তম)

১০০ বার সুবহানআল্লাহ ওয়াল হামদুলিল্লাহ ওয়া লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু ওয়াল্লাহু আকবার (এটা আলাদা আলাদা করেও পড়া যায়:- ১০০ বার সুবহানআল্লাহ, ১০০ বার আলহামদুলিল্লাহ, ১০০ বার লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহ্, ১০০ বার আল্লাহু আকবার)

প্রতিদিন তার মানে, সর্বমোট '৬০০ বার' পড়বেন।

নোট:
* কেউ যদি ব্যস্ততা বা নানান কারণে এক বসায় পুরোটা পড়ে, তাও হয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ।
** ওযু সহকারে, বসে, মনোযোগ সহকারে পড়াই উত্তম।
*** অভ্যাস শুরুর জন্য, প্রাথমিক অবস্থায় হাঁটা-চলায়ও আদায় করা যায়; সবসময় হাঁটা-চলায় পড়ার অভ্যাস না করাই উত্তম
**** কোনোদিন ছুটে গেলে রাতে বা তার পরদিন যোহরের আগে যেকোনো সময়ে আদায় করে নিন ইনশাআল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *