একে অপরের ভাই

আমীরুল মুমিনীন উমর রা. তার গোলমের হাতে চার হাজার অথবা চার শত দীনার দিয়ে বললেন: এগুলো নিয়ে তুমি আবু উবায়দা বিন জাররাহ’র কাছে যাবে। আমার পক্ষ থেকে এগুলো হাদিয়াস্বরূপ তাকে দেবে। তারপর তুমি দেখবে তিনি এগুলো কী করেন।

গোলাম আবু উবায়দা বিন জাররাহ রা.-এর কাছে গিয়ে সালাম পেশ করে দীনারগুলো দিয়ে বলল: আমীরুল মু’মিনীন এগুলো আপনার কাছে হাদিয়াস্বরূপ পাঠিয়েছেন।

আবু উবায়দা রা. হাদিয়া পেয়ে উমর রা. এর জন্য দু’আ করলেন। বললেন: আল্লাহ তার উপর রহমত নাযিল করুন, তাকে সুস্থ রাখুন। তারপর নিজ ছেলেকে ডেকে বললেন: এই সাত দিনার অমুকে দাও, এই পাঁচ দীনার অমুকের ঘরে দিয়ে আস, এই দশ দীনার ঐ ব্যক্তিকে দাও, এই বিশ দীনার তার জন্য। এভাবে তিনি সব দীনার বন্টন করে দিলেন।

গোলাম উমর রা. এর কাছে ফিরে আসল এবং সে যা দেখেছে তা বলল।

উমর রা. শুনলেন। তারপর তিনি সমপরিমাণ দীনার গোলামের মাধ্যমে মায়ায বিন জাবাল রা. এর কাছে পাঠালেন। গোলামকে একই নির্দেশনা দেয়া হল: তুমি দেখ তিনি এটা নিয়ে কী করেন।

গোলাম মায়ায রা. এর কাছে পৌঁছল। সালাম দিয়ে বলল: এগুলো আপনার জন্য উমর রা. হাদিয়া দিয়ে পাঠিয়েছেন।

মায়ায রা.-ও হাদিয়া পেয়ে উমর রা. জন্য দু’আ করলেন। তারপর তিনি নিজের ছেলেকে ডেকে বললেন: অমুকের ঘরে পাঁচ দিনার দাও, তাকে দশ দীনার দাও, অমুককে বিশ দীনার দিয়ে দাও। এভাবে তিনি হাদিয়ার ব্যাগটি প্রায় খালি করে ফেললেন।

ইত্যিমধ্যে তার স্ত্রী এসে বললেন: আমরাও তো মিসকীন। আমাদের জন্যও কিছু রাখুন! ঐ থলেতে মাত্র দুই দীনার বাকি ছিল। তিনি সেটা তার স্ত্রীকে দিলেন।

গোলাম উমর রা.-এর কাছে ফিরে এল এবং তাকে ঘটনা খুলে বলল। আমীরুল মু’মিনীন উমর রা. অত্যন্ত খুশি হলেন। তিনি বললেন: এরা একে অপরের ভাই, তারা ভালো কাজে সবাই এক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *