আসুন এ অবস্থাকে রহমতের মাধ্যম বানাই – ১

নানান বিপদাপদ, আজ আমাদের ওপর যা-ই আসছে আল্লাহ পাকের আদেশেই আসছে। এড়িয়ে যাবার কোনো উপায় নেই। বাহাদুরির কোনো প্রশ্নই ওঠে না! ঈমানদারকে আল্লাহ তাআলার আদেশের দিকেই প্রত্যাবর্তন করতে হবে। মূল করণীয় এটিই।

অতএব এ অবস্থাকে একটি উত্তম সুযোগ হিসেবে গ্রহণ করি আমরা; সুযোগ গ্রহণ করি জীবনকে পরিবর্তন করার। একে তো রজব-উল-মুজাররাবে আছি (যা পবিত্র চার মাসের অন্তর্ভুক্ত, মাসটি অবশ্য প্রায় শেষের পথে..), সামনে আসছে শাবানুল মুয়াযযাম, তারপরই রমযানুল মুবারক। আহ্! ঈমানদারের জন্য কী অপূর্ব মৌসুম এটি।

জীবনে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার জন্য কোনো টাকা বিনিয়োগ করতে হবে না, বা বেশি কষ্ট-ক্লেশ-খাটনিরও কিছু নেই। যেই স্থানে, যে অবস্থায় আছি সে অবস্থায়ই শুধু “আল্লাহ আমাকে তুমি ক্ষমা করে দাও! আমি তোমার দিকে ফিরছি। আমি এইসব পাপ-পঙ্কিলতা থেকে তওবা করছি!” বলে আবেদন করি। দাঁড়ানো অবস্থায় থাকি বা বসা অবস্থায়, এমনকি যদি শোয়া অবস্থায় থাকি –ওঠাও লাগবে না। শুধু সেই মহামহিম কারীম রবকে ডাকি — তাঁর কাছে ক্ষমা চেয়ে নেই। যদি গুনাহ ছাড়ার সাহসটুকু পর্যন্ত না হয়, তবু তাঁকে ডাকুন! তাঁকে বলুন, আল্লাহ! আমি চাইতে পারি বা না পারি, তুমি আমার ওপর রহম করো — আমাকে চাওয়ার তাওফীকটুকু দিয়ে দাও। তুমি ছাড়া আমার কোনো আশ্রয় নেই। আমাকে যেকোনো উপায়ে গুনাহ ছাড়ার তাওফীক তুমি দিয়ে দাও। আন্তরিকভাবে তাঁর সাহায্য চান। এ সাহায্যটুকু চাওয়াটাই আমাদের চেষ্টা হোক।

..এভাবেই প্রস্তুত হয়ে যান। আর কালক্ষেপণ কোরেন না। মনে করুন, সুযোগের শেষটুকু কাজে লাগাচ্ছেন। এটাও কম নয়, অনে-ক! আল্লাহ তাআলারই তাওফীক হচ্ছে বলেই তো সম্ভব হয়ে থাকে, হচ্ছে-হবে। নিজের সাথে প্রতারণা করে আর কত দিন বেঁচে থাকব?! সম্ভবই নয়। ধরা একদিন পড়তেই হবে।

ঈমানের নেয়ামত অত্যন্ত দামী। এক কথায় অমূল্য। অবহেলা, টাল-বাহানা, অলসতা, গাফলতি করা মানে আসলেই নিজেকেই নিজে ধোঁকা দেওয়া। যদিও ধরেও নেওয়া হয় আজ আমার মৃত্যু হবে না, কাল তো হতে পারে? যদি কালকে আমি হায়াত পাই, তাহলে পরশুও কি আমার হায়াত নিশ্চিত?! কখনোই নয়।

সবিশেষ অনুরোধ, তওবা করি আমরা। নিজে তো করবই। পরিবারের সবাইকে ও ঘনিষ্ঠদের কাছে একই আহ্বান করি আজ — ভাই চলো তওবা করি; আল্লাহ তাআলার কাছে বিনীতভাবে তওবা করি আমরা। এভাবেই আল্লাহ তাআলার আযাব-গযব থেকে আশ্রয় মিলতে পারে। অন্য সব পথ ও পদ্ধতি হলো দুই নম্বর। তওবাই এক নম্বর।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *