অন্তিম শয্যায় শেষ উক্তি-১

হযরত আবু বকর সিদ্দীক রা.

সাহাবী-শ্রেষ্ঠ ও প্রথম খলীফা। সর্বপ্রথম ঈমান আনায়নকারী পুরুষ। মহানবী ﷺ-এর চির সহচর। মিথ্যা নবুওয়াতের দাবীদারদের মূলোৎপাটন এবং যাকাত প্রদানে অস্বীকারকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করেন। জীবনের শেষ সময় হযরত উমর রা. কে উদ্দেশ্য করে বললেন: এখন থেকে আপনি নামায পড়াবেন। অসুস্থতা বেড়ে যাওয়ায় কোন কোন সাহাবী আরয করলেন: আপনি অনুমতি দিলে আমরা চিকিৎসক ডেকে আনব। হযরত আবু বকর জবাবে এই আয়াত উচ্চারণ করতে লাগলেন: فعا ل لما ير يد অর্থ: তিনি (আল্লাহ্ তায়ালা) যা ইচ্ছে করেন তা-ই করেন।

অতঃপর যখন জীবনের অন্তিম লগ্নটি এসে উপস্থিত হলো তিনি পড়তে লাগলেন: رب تو فنى مسلما و الحقنى با لصا لحين অর্থ: প্রভু হে, ইসলামের উপর আমার মরণ দাও, মুসলিম হিসেবে আমার মৃত্যু হোক এবং আমাকে সৎলোকদের অন্তর্ভুক্ত কর। এ বাক্যটি শেষ হওয়ার সাথে সাথেই তাঁর পবিত্র রূহ তাঁর স্রষ্টার সান্নিধ্যে পৌঁছে যায়।

হযরত মুয়ায ইবনে জাবাল রা.

প্রখ্যাত সাহাবী।

প্রথম দিকে ইসলাম গ্রহণকারী মদীনাবাসীদের অন্যতম। বহুসংখ্যক জিহাদে শামিল হয়েছেন। মৃত্যু সময় নিকটবর্তী হলে তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন। লোকেরা জানতে চায়, আপনি কাঁদছেন কেন? আপনি তো মহানবী ﷺ-এর সাহাবী। ইলম্ ও ফযলের ভান্ডার। আপনার কান্নার কী আছে? হযরত মুয়ায রা. জবাবে বললেন: “আমার ভয় মৃত্যুকে নয়। পৃথিবী ছেড়ে যাওয়াতেও আমার উৎকন্ঠা নেই। আমার হৃদয়ে কেবল আল্লাহ্ তাআলার ভয়। আযাব ও পুরষ্কারের আশা-নিরাশার দোলা। সেই খেয়াল।”

[‘অন্তিম শয্যায় খ্যাতিমানদের শেষ উক্তি’ (মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী) বইটি থেকে সংকলিত। প্রকাশনী: দারুল কিতাব। ]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *