হিংসা-বিদ্বেষ দ্বীন ধ্বংসকারী: মুসলমান বিদ্বেষী নয় – ১

​​​আমাদের দ্বীনের (ইসলামের) মধ্যে হিংসা-বিদ্বেষের স্থান নেই। কারো সাথে আমাদের মত-পার্থক্য হলে তার সাথে আমাদের দ্বন্দ্ব ও সংঘাতে লিপ্ত হওয়া দূরের কথা, হিংসা-বিদ্বেষের বশবর্তী হয়ে কোনো কাজ যেন প্রকাশ না পায়, এ বিষয়ে অত্যন্ত সতর্ক থাকতে হবে।

এমনকি অপর পক্ষ যদি আপোষহীন এবং এক রোখাও হয়, তার প্রতি কোনো বিদ্বেষ-আক্রোশ রাখব না। তার সাথে যতদূর সম্ভব সুমধুর সম্পর্ক বজায় রাখার চেষ্টা করব। তাতেও যদি অপর পক্ষ নরম না হয় তবু সুযোগ খুঁজব ও উত্তম আচরণই করব। যদি তার সাথে মেলামেশার চেষ্টা করলে ফেতনার আশঙ্কা থাকে তার থেকে বাহ্যিক দূরত্ব বজায় রেখে আন্তরিকভাবে দুআ করতে থাকব।

আমরা আল্লাহ পাকের সন্তুষ্টির জন্য এতটুকু করতে পারলে নিজেকে অনেক বড় গুণাহ থেকে বাঁচাতে পারব ইনশাআল্লাহ।

হিংসা-বিদ্বেষ অহংকারের সহযোগী। ​হিংসা-বিদ্বেষ ঝগড়া-বিবাদ উৎপন্নকারী ও সর্বোপরি ফেতনা-ফ্যাসাদ সৃষ্টিকারী। ভ্রাতৃত্বের মাঝে ​অনৈক্যের মদদ দাতা। ​হিংসা ব্যাপক দলাদলি, ঝগড়াঝাটি,​ এমনকি​ খুনাখুনি এবং এবং বড় বড় ফেতনার দ্বার উন্মোচনকারী।

মুমিন কারো বিরুদ্ধে বিদ্বেষপ্রসূত কাজ করে না। মুমিন আল্লাহ তাআলা’র সন্তুষ্টির লক্ষ্যে কাজ করে থাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *