হিংসা-বিদ্বেষ দ্বীন ধ্বংসকারী: মুসলমান বিদ্বেষী নয় – ২

হিংসা-বিদ্বেষ অন্তর তথা অভ্যন্তরীণ একটি গুণাহ। তাই নিজের ভেতর এর গভীরতা কত বেশি সেটা মানুষ সহজে বোঝে না। বরং নিজের কাছে মনে হতে থাকে, আমিতো হিংসুকই নই! আমি তো কাউকে হিংসা করিনা। অথচ বাস্তবতা এমন হতে পারে যে, আমি হিংসা-বিদ্বেষে অনেক অগ্রসর (নাউযুবিল্লাহ)।

আমার মাঝে হিংসা আছে কি নেই – এটা বোঝার একটি সাধারণ উপায় হল, নিজেকে এ প্রশ্ন করা যে, কারো ক্ষতি হলে আমি কি আনন্দিত বা উল্লাসিত হব? বা কারো যদি কোনো বিপদ হয় আমি কি (মনে মনে হলেও) খুশী হয়ে যাব? কারো কোনো নেয়ামত যদি ধ্বংস হয় আমি কি সে খবর শুনে (বা দেখে) খুশী হব? যদি এরকম প্রশ্নের উত্তর ‘ইতিবাচক’ হয়, এটা প্রমাণ বহন করে যে, আমি অমুক বা অমুকের বিরুদ্ধে ‘হিংসা’ পোষণ করি। আল্লাহ তা’আলা এটা অত্যন্ত অপছন্দ করেন।

হিংসা অন্তরের মারাত্মক একটা রোগ। এ থেকে বেঁচে থাকা জরুরী। হাদীসে হিংসুকের পরিণাম সম্পর্কে কঠোর শাস্তির কথা রয়েছে। ইনশাআল্লাহ তা সামনে উল্লেখ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *