সাইট পরিচয়

আলহামদুলিল্লাহ! সব প্রশংসা আল্লাহ তাআলার।

তাঁর প্রিয় রাসূল ﷺ-এর প্রতি অশেষ সালাম ও দরূদ। সালাম ও রহমত বর্ষিত হোক তাঁর পূণ্যাত্মা পরিবারবর্গের এবং সাহাবায়েকেরাম রা.-এর উপরও।

আল্লাহ তাআলার অশেষ রহমতে ২০০৭ ইংরেজি সালে এই সাইটের যাত্রা শুরু হয়েছিল । ২০১২ সালে বাংলা সাইটটি launch হয়।

শাশ্বত সত্য তথা পবিত্র কুরআন ও হাদীসের শিক্ষা প্রচার করা IslamInLife-এর মূল উদ্দেশ্য।

IslamInLife-এর team এবং সাইট সম্মানিত উলামায়েকেরামের দুআ ও নির্দেশনায় পরিচালিত।

IslamInLife-এ থাকছে পবিত্র কুরআন ও হাদীসের আলোকে আলোচনা, প্রবন্ধ, পূর্বসূরী নেক মহামানবদের জীবনী এবং সমসাময়িক নানান বিষয়।

আরো থাকছে ইসলামের মৌলিক বিশ্বাসসমূহ (ঈমান-আক্বীদা) এবং নেক-কাজ সম্পর্কিত আলোচনা ও দিক-নির্দেশনা।

IslamInLife-চায় মুসলিম জীবনের প্রতিটি কোণসম্পর্কিত নির্দেশনা সহজ-সরলভাবে তুলে ধরতে।

কিছু নিবেদিতপ্রাণ মুসলমান স্বতঃস্ফূর্তভাবে IslamInLife-এর কাজে সহযোগিতা করে আসছেন। আল্লাহ তাআলা সবাইকে উত্তম বিনিময় দান করুন!

এ আল্লাহ! তুমি আমাদের পক্ষ থেকে এ ক্ষুদ্র প্রচেষ্টাগুলো গ্রহণ কর। একে আমাদের জন্য সাদাকায়ে জারিয়া ও মুক্তির মাধ্যম বানিয়ে দাও। আমীন।

শ্রদ্ধেয় পাঠকগণ! আপনার মন্তব্য ও পরামর্শের জন্য ই-মেইল করুন: careislam[at]gmail[dot]com অথবা আমাদের যোগাযোগ পাতার মাধ্যমে আপনার মন্তব্য, পরামর্শ ও প্রশ্ন করুন। জাযাকআল্লাহু খাইরান (আল্লাহ তাআলা আপনাদের সবাইকে উত্তম বিনিময় দিন)।

এই সাইটের পেছনে কারা?

আমাদের এই ওয়েবসাইটটি এবং সংশ্লিষ্ট ফেসবুক পেইজ, ইউ-টিউব চ্যানেল কিছু সংখ্যক আলেমে দ্বীন ও জেনারেল শিক্ষিত ভাইদের দ্বীনি খেদমতের ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা।

আমাদের এখানে একক কোনো ব্যক্তি নেই যার নাম উল্লেখ করার মতন।

আমরা পরামর্শ ও নির্দেশনা গ্রহণে যুগের আলেমগণের শরণাপন্ন হয়ে থাকি এবং তালীম-তাযকিয়া-দাওয়াতের সবক্ষেত্রে আমাদের উপমহাদেশের দেওবন্দের আকাবিরীনের ধারায় অন্তভুর্ক্ত আলেমগণকে হকের ‘মেইয়ার’ (মানদন্ড) হিসেবে সহজ-সরলভাবে অনুসরণ করে থাকি। সে হিসেবে আমাদের সাথে প্রত্যক্ষভাবে সংশ্লিষ্ট সবাই বাংলাদেশ, ভারত এবং পাকিস্তানের হাটাহাজরি, পটিয়া, মারকাযুদ্দাওয়াহ আল ইসলামিয়া, দেওবন্দ ও দারুল উলুম করাচী – এসব মাদারিসের আলেম ও বুযূর্গদের সাথে সম্পর্কিত। তাই বুঝতেই পারছেন যে আমরা হানাফী ফিকহের অনুসারী। কিন্তু অবশ্যই সব মাযহাবের ইমাম, তাদের শিক্ষা ও অনুসারীদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। অন্যান্য সব মুসলামানদের প্রতি আমাদের সৌহার্দ ও সম্প্রীতি, কারো সাথে কোনো বিদ্বেষ নেই। বিদাআত, গোমরাহি ও গুনাহকে আমরা অবশ্যই গুনাহ বলে বিশ্বাস করি।

অন্য সব ধর্মের মানুষের প্রতি আমরা সহনশীল ও কুরআন-সুন্নাহর অবস্থানে আছি। তারাও ইসলামকে জানুক ও ইসলামের ছায়াতলে এসে পার্থিব ও পরকালীন শান্তি এবং মুক্তি পেয়ে যাক, এটা আমাদের আন্তরিক কামনা ও দুআ।

এ ওয়েবসাইটটিতে যেসব আলেমগণের নাম, শিক্ষা, চিন্তা-চেতনার প্রতিফল বেশি পাবেন, তাদের অন্যতম: হাকীমুল উম্মত রাহিমাহুল্লাহ, শায়খ হুসাইন আহমাদ মাদানী রাহিমাহুল্লাহ, হজরতজী ইলিয়াস রাহিমাহুল্লাহ, শায়খুল হাদীস যাকারিয়া রাহিমাহুল্লাহ, হাফেজ্জী হুজুর  রাহিমাহুল্লাহ, মুফতী শফী  রাহিমাহুল্লাহ, মুফতী তাকী উসমানি দাঃ বাঃ, শায়খ আবদুল মালেক দাঃ বাঃ, শায়খ হামীদুর রাহমান সাহেব দাঃ বাঃ। উনাদের মাধ্যমে নিকটবর্তী অতীত ও বর্তমান সময় থেকে আমাদের পর্যন্ত দ্বীন পৌঁছেছে – তা বলাই বাহুল্য। বিশেষভাবে এই অঞ্চলে তো বটেই, বরং উনাদের প্রায় সবার মাধ্যমে সমগ্র পৃথিবীতে দ্বীনের আলো চমকেছে! আমরা কুরআন ও হাদীসের যতটুকু শিক্ষা পেয়েছি ও পাচ্ছি – এসব বরেণ্য মানুষগুলো তাদের অন্যতম, কিন্তু নিঃসন্দেহে শুধু এ কয়টি নামে এ তালিকাটি সীমাবদ্ধ নয়। আর এ কথাও অনস্বীকার্য যে, আমরা এ উলামা ও আল্লাহওয়ালাগণকে কুরআন ও হাদীসের সঠিক, সত্য ধারক ও বাহক বলে বিশ্বাস করি বলেই তাদেরকে অনুসরণ করে থাকি।

সংক্ষেপে বলতে গেলে, যুগের মুত্তাকী আলেমদের কাছ থেকে দ্বীন গ্রহণ করে, সহজ-সরলভাবে কুরআন ও সুন্নাহ অনুযায়ী জীবন গঠন ও তাদের শিক্ষার আলোকে সাধ্যমত ইসালাম প্রচার-প্রসার করা আমাদের লক্ষ্য।

আল্লাহ তাআলা আমাদের এ নগণ্য চেষ্টাটুকু কবুল করে আমাদের জন্য মুক্তির ব্যবস্থা করে দিন! আমীন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

প্রবন্ধটি অবশ্যই প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন। আল্লাহ তাআলা আমাদের নেক-কাজে বরকত দিন!

error: