জীবনে সময়ের বরকত পেতে হলে করণীয়: ৫

আখেরাতে আমার কী অবস্থা হবে – এ চিন্তাকে মূল চিন্তা বানাতে হবে।

নিজের পরিণতি চিন্তা আমাকে নেক কথা ও কাজের দিকে ধাবিত করবে, অহেতুক কথা ও কাজ থেকে দূরে রাখবে।

আজ আমরা যে লাগামহীন এক জীবনে অভ্যস্থ হয়েছি তার অন্যতম কারণ হল পরকালে অবিশ্বাস। অথবা পরকালকে অত্যন্ত গুরুত্বহীন মনে করা। সেখানে আমার কাজের বিচার হবে, বিচারক স্বয়ং মহাপরাক্রমশালী সত্ত্বা আল্লাহ হবেন – এ চিন্তাটি মনে যেন উন্নতভাবে উদয়ই হয় না।

যার সামনে জবাবদিহিতার কোন ভয় নেই, ভয় নেই কোন ধড়-পাকড়ের, তার আর জীবনের উদ্দেশ্য ও সময়ের মূল্যের কী চিন্তা। থাকলে তার পরিসর এ পার্থিব জীবন কেবল।

কোন মুমিন কি কখনো এমন ভেবে স্থির থাকতে পারে?! তার মাথায় তো সব কাজেই পরম ও চরম পরিণতি-চিন্তা! কী নিয়ে কবরে ধাবিত হচ্ছি আর কী নিয়ে কবর থেকে উঠব? আর এ চিন্তাই তাকে সঠিক সময়ের ব্যবহারে ব্যতিব্যস্ত করে তোলে।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *