বছর শেষ: হিসাব-নিকাশ নাকি আনন্দ?

২০১৮ ইংরেজি বছরটি জীবন থেকে চলে যাচ্ছে অথবা চলে গিয়েছে।

কেউ যদি নতুন বছরের সূর্যোদয় দেখে থাকে সে তো পুরনো বছরের সূর্যাস্তও দেখেছে? নতুন বছরে প্রবেশ করা হয়েছে মাত্র, কিন্তু পুরনো বছর তো জীবনে ‘সুদীর্ঘ একটি বছর’ পাওয়া গিয়েছিল! সেই হিসেবে একজন আপন – তাকে পেয়েছিলাম, ভালো করে চিনেছিলাম। আর আরেকজন নতুন। তার সাথে দেখাই হল মাত্র! নতুন বন্ধু পেয়ে যে পুরনো বন্ধুকে বেমালুম ভুলে যায় তাকে কি বলবেন?

এক হল পূর্বের হিসাব-নিকাশ। আরেক হল ভবিষ্যতের পরিকল্পনা। পূর্বের হিসাব-নিকাশ বাকি থাকতেই হঠাৎ পরিকল্পনা শুরু করা কি বুদ্ধিমানের কাজ? গত বছরের খতিয়ান সামনে। কিন্তু তাতে একটু চোখও বুলালাম না, নতুন বছরের আগমনে আনন্দে আত্মহারা হয়ে পড়লাম?!

বছর শেষে সঠিক অনুভূতি কেমন হওয়া উচিত – স্থিরভাবে একটু চিন্তা করলে সত্য উদ্ভাসিত হয়ে উঠবে।

পার্থিব জীবন পরীক্ষাস্থল। এ জীবনের প্রকৃত গন্তব্য ও উদ্দেশ্য হারিয়ে মানুষ আসলে নিজেকেই হারিয়ে ফেলে! কাউকে আনন্দ গ্রাস করছে, কাউকে বেদনা। কেউ কেউ উপকারি কাজে লেগে আছে, কেউ কেউ দায়িত্ব-কর্তব্য এড়িয়ে নিজ মনের অনুগামী হয়ে গেছে। এসবই হল ব্যক্তি ও সমাজ জীবনে বিপদ ও বিপর্যয়ের অন্যতম কারণ।

কুরআনের শুধু দু’টি আয়াতের তরজমা উল্লেখ করছি (তাওফীক পেলে ইনশাআল্লাহ একদিন ব্যাখ্যা আলোচিত হবে) । চক্ষুষ্মানদের জন্য যথেষ্ট হবে ইনশাআল্লাহ:

অর্থ: “যারা মুমিন, তাদের জন্যে কি আল্লাহর স্মরণে এবং যে সত্য অবর্তীর্ণ হয়েছে, তার কারণে হৃদয় বিগলিত হওয়ার সময় আসেনি? তারা তাদের মত যেন না হয়, যাদেরকে পূর্বে কিতাব দেয়া হয়েছিল। তাদের উপর সুদীর্ঘকাল অতিক্রান্ত হয়েছে, অতঃপর তাদের অন্তঃকরণ কঠিন হয়ে গেছে। তাদের অধিকাংশই পাপাচারী।” সূরা হাদীদ ৫৭:১৬

অর্থ: “তোমরা তাদের মত হয়ো না, যারা আল্লাহকে ভুলে গিয়েছিল ফলে আল্লাহও তাদেরকে আত্মবিস্মৃত করে দিয়েছিলেন; আর তারাই হল ফাসিক।” সূরা হাশর: ৫৯.১৯

Please follow and like us:

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error

প্রবন্ধটি অবশ্যই প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করুন। আল্লাহ তাআলা আমাদের নেক-কাজে বরকত দিন!

error: